শূন্য - হুয়ামূন আহমেদ Sunno by Humayun Ahmed

শূন্য - হুয়ামূন আহমেদ Sunno by Humayun Ahmed

শূন্য 
হুয়ামূন আহমেদ
জনরা_ সায়েন্স ফিকশন, কল্পনা আশ্রিত উপন্যাস
পৃষ্ঠা সংখ্যা_ ৫৯


সায়েন্স গল্পের প্রতি পাঠকদের টান সর্বজনীন।এই টানের জন্য একবার পাঠকরা বই পড়া শুরু করলে শেষ না করে কোনো উপায় থাকে না। এখানেই একজন লেখক এর সার্থকতা। পাঠক যদি সেই রকম বই একবার পাঠ করতে শুরু করে তালে শেষ করা পর্যন্ত তার কাছে আর কোনো উপায় থাকে না তেমন একটা বুক হলো হুয়ায়ুন আহমেদ রচিত শূন্য নামক উপন্যাস টি।

এবার কাহিনীর বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা করা যাক। এইই সায়েন্স ফিকশন এর মূল চরিত্র হলো মনসুর সাহেব। তিনি একজন স্কুল শিক্ষক।তার পরিবারে কেউ বর্তমানে বেচেঁ নেই। তিনি বর্তমানে একা বসবাস করেন আজিম খাঁ বেপারীর গুদামের উপরের ঘরে (নেত্রকোনা শহরে) ও তার কর্মচারী ও তার সব সময়ের সঙ্গী হরমুজ মিয়া সঙ্গে। তিনি একা একা থাকেন আর রাত দিন গণিতের বিভিন্ন জটিল সমস্যা নিয়ে চিন্তা করেন। তার সব চেয়ে পছন্দের রাশিমালা হলো ফিবোনাক্কি রাশিমালা।এক ঝড় বৃষ্টির রাতে বজলুর ফার্মেসি থেকে ফেরার পথে তিনি বজ্রাহত হন। ও তার পর থেকে মনসুর সাহেব এর মানসিক সমস্যা সৃষ্টি হয় ওহ তাকে মাঝে মাঝে তিনি উল্টো পাল্টা আচরণ করে ফেলেন। তিনি তার সঙ্গে সব সময় একজন ব্যক্তিকে আবিষ্কার করেন । যাকে শুধুমাত্র তিনি দেখতে পান। আর সেই ব্যক্তি নিজেকে শূন্য জগতের বাসিন্দা বলে দাবি করেন, ও সেই যুবক মনসুর সাহেবকে বলেন তে তিনি তার গবেষণার সাহায্য করার জন্য অন্য জগৎ থেকে এসেছে।

এর পর থেকে কাহিনী দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলে।যেহেতু মনসুর সাহেব তার গবেষণার বিষয়বস্তু সাথে নাম মিলিয়ে তার নাম রাখে ফিবোনাক্কি সেকি সত্যিই অন্য জগৎ থেকে এসেছে? না সে মনসুর সাহেব এর কল্পনা? এটি আমরা জানতে পারি উপন্যাসের একদম শেষে।
মনসুর সাহেব ফিবোনাক্কি সিরিজ নিয়ে একটি জটিল অংক সমাধান করার চেষ্টা করছেন। আর শুধু মনসুর সাহেব না মনসুর সাহেব এর বাবা, তার বাবা, ও মনসুর সাহেব তিন পুরুষ মিলে সেই সমস্যার সমাধান এর চেষ্টা করছেন ও মনসুর সাহেব সেই সমস্যা সমাধানের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছেন। যেহেতু মনসুর সাহেব এর কোন পুএ নেই তাই মনসুর সাহেব কেই তার জীবিত অবস্থায় এই সমস্যার সমাধান করতে হবে। তিনি সমস্যা সমাধান করে ফেলেছেন একটু বাকি এদিকে তার চোখের সমস্যা ও শরীর খারাপ বেড়েই চলেছে? মনসুর সাহেব বুঝতে পারছেন তার সময় শেষ হয়ে আসছে।তিনি কি পারবেন এই সমস্যার সমাধান করতে?মানুষ  জাতি কি পারবে অঙ্কের মাধ্যমে এমন এক সমস্যার সমাধান করতে তার সাহায্যে শূন্য জগতে প্রবেশ করা সম্ভব?শূন্য জগৎ কি? আর এই ফিবোনাক্কি বা কে তার আসল উদ্দেশ্য বা কি ? সেকি সত্যি মনসুর সাহেব এর সফলতা চায় তাকে সাহায্য করতে এসেছে নাকি তার আসল উদ্দেশ্য অন্য.........
এর উত্তর জানতে হলে আমাদের পড়তে হবে হূমায়ুন আহমেদের লেখা শূন্য নামক এই দূর্দান্ত সায়েন্স ফিকশন উপন্যাসটি আমার মতে বিশ্ব সাহিত্য এ রকম টানটান সায়েন্স ফিকশন ও কল্পনা আশ্রিত উপন্যাস দুর্লভ   যেমন এর কাহিনী বুনন তেমন এর মানবিক দিক
যার শেষ অংশে পৌঁছে অদ্ভুত এক ভালোলাগা ওহ মন খারাপ লাগবে যার রেশ উপন্যাস টি শেষ হলে ওহহ আপনার মাথায় থেকে যাবে।
তাই সকলের কাছে আমার অনুরোধ আপনারা অতি অবশ্যই পড়ে দেখুন হূমায়ুন আহমেদের লেখা শূন্য..

রেটিং _তাই আমি একে ১০ এর মধ্যে ১০ দেবো।

রিভিউটি লিখেছেনঃ Bapon Da

Post a Comment

0 Comments