পাঞ্চজন্য - গজেন্দ্রকুমার মিত্র Panchojonno by Gajendrakumar Mitra pdf

পাঞ্চজন্য - গজেন্দ্রকুমার মিত্র

বইয়ের নামঃ পা ঞ্চ জ ন্য

লেখকঃ গজেন্দ্রকুমার মিত্র

প্রকাশনীঃ মিত্র এন্ড ঘোষ

প্রকাশকালঃ ১৯৯৮

পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৩৭৭

সাইজঃ ৩০.০ এমবি

ফরম্যাটঃ PDF

টেক্স ফরম্যাটঃ HD Scanned Version

রেজুলেশনঃ ৬০০ DPI

বইয়ের ধরণঃ হিন্দু ধর্মীয়

পাঞ্চজন্য - গজেন্দ্রকুমার মিত্র



or


or









tags: bangla boi, bangla ebooks, ebooks, BangladeshI books, indian bangla boi, bangla ebook, bd boi, bd book, all boi bd, allboibd, bd bangla books, Indian writters books, onubad ebooks, onubad ebook, onubad boi, bd writters, bangla ebooks download, bangla ebook download,  bangla boi download,  poems ebooks, natoks download ebooks, novels ebooks, bangla novels, computer ebooks, ms office ebooks, words ebooks, excell ebooks, deshi boi, ebooks bangla, Indian bangla books, Indian bangla ebooks, free bangla ebooks, free ebooks, free boi, free ইবুক



পাঞ্চজন্য



শ্রীকৃষ্ণ কুরুক্ষেত্র যুদ্ধের প্রাক্‌কালে বলেছেন- ‘যদা যদাহি ধর্মস্য গ্লানির্ভবতি ভারত, অভ্যুত্থানমর্ধস্য তদাত্মাং সৃজাম্যহম্‌।’ সেই শ্রীকৃষ্ণ যখন দ্বাপরযুগের জম্মেছিলেন এবং কুরুক্ষেত্র যুদ্ধের যখন তিনিই একরকম প্রধান নায়ক -তখন বুঝতে হবে যে ধর্মের গ্লানি ও অধর্মের অভ্যুত্থান ভালরকমই ঘটেছিল, পৃথিবীর মানুষ অত্যাচারে অবিচারে দুঃখে কষ্টে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিল, রাজশক্তি তথা ক্ষাত্রশক্তি লোভ অসূয়া দ্বেষ হিংসা শূন্যগর্ভ -অহংকার ও আত্মনাশা বুদ্ধিতে আচ্ছন্ন এবং মতিভ্রান্ত হয়ে গিয়েছিল। শ্রীকৃষ্ণ কি ভারতকে তার পঙ্ক-শয্যা থেকে, নিত্য আত্মাবমাননা ও মালিন্য থেকে উদ্ধার করতে চেয়েছিলেন? চেয়েছিলেন কি সম্ভোগমত্ত মদগর্বিত নির্বোধ বিকৃত ক্ষাত্রশক্তির হাত থেকে দেশের শাসনক্ষমতা কেড়ে নিয়ে শুভবুদ্ধি সম্পন্ন সৎ মানুষের হাতে দেশের ভার তুলে দিতে? চেয়েছিলেন কি দরিদ্র, নিপীড়িত, মূঢ়, মূক সেইসব সাধারণ মানুষদেরই সঙ্ঘ-শক্তিকে শাসন শক্তিতে রূপান্তরিত করতে? এইজন্যই কি তাঁর বিখ্যাত ঘোষক শঙ্খের অন্য কোন নাম না দিয়ে পাঞ্চজন্য রাখা হয়েছিল? সেইজন্যই কি তিনি রাজসূয় যজ্ঞে সাদারণ মানুষদের পাদ-প্রক্ষালনের ভার নিয়েছিলেন? ‘পাঞ্চজন্য’ গ্রন্থের মহাভারতীয় কাহিনীর মধ্যে লেখক এই সব প্রশ্নেরই উত্তর সন্ধান করেছেন।

Previous
Next Post »
iklan banner